ইউসুফ (আ) এর সত্যিই কি জুলেখার সাথে প্রেম ছিলো ? ইসলামে প্রেম বা ভালোবাসা । বিস্তারিত ব্যাখ্যা সহ

ইউসুফ জুলেখা প্রেম ভালোবাসা ইসলাম মিথ্যা কাহিনী গল্প
ইউসুফ (আ) এর সত্যিই কি জুলেখার সাথে প্রেম ছিলো ? ইসলামে প্রেম বা ভালোবাসা । বিস্তারিত ব্যাখ্যা সহ

ইউসুফ (আ) ও জুলেখার যে ঘটনা বা প্রেম কাহিনী সমাজে প্রচলিত আছে সেটা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট । শুধু তাই না , এটা মনে করা বা বিশ্বাস করা বা বলা অনেক বড় গোনাহের কাজ ।
কারণ এর মাধ্যমে , ইউসুফ (আ) এর সুচরিত্রে কলংকের অপবাদ দেওয়া হচ্ছে । আর কারোর সুচরিত্রে কলংকের অপবাদ দেওয়া অনেক বড় গোনাহের কাজ । আর সেখানে আমরা ইউসুফ (আ) কে এত বড় অপবাদ দিচ্ছি । ( নাউজুবিল্লাহ )
আর কেউ কোনো দোষ বা পাপ করে পরে সেটা কোনো নির্দোষ ব্যক্তির প্রতি আরোপ করলে সে তো মিথ্যা অপবাদ ও স্পষ্ট পাপের বোঝা বহন করে [ 4:112 ]

বিস্তারিত ব্যাখ্যা সহ :

প্রেম করেছেন ইউসুফ নবী ই ই—————————-।
তার প্রেমেতে জুলেখা বিবি ই ই——গো ও————————–।’
আমাদের দেশের মানুষ যে এতবড় জালিয়্যাত !! মূর্খ !!
এরা হারাম প্রেমকে হালাল বানানোর জন্য শেষ পর্যন্ত আল্লাহর নবী ইউসুফ(আ) কেও আপবাদ দিতে দ্বিধা বোধ করলো না ……………।।
এই গানটি যে ইউসুফ (আ) এর সুচরিত্রে কত বড় কলংকের অপবাদ

তা দেখুন আল্লাহ ইউসুফ (আ) এর সম্পর্কে সুরা ইউসুফ এ কি বলেছেন…..
আয়াত-23
আর সে(ইউসুফ) যে মহিলার ঘরে ছিল, ঐ মহিলা তাকে ফুসলাতে লাগল এবং দরজাসমূহ বন্ধ করে দিল। সে মহিলা বললঃ শুন! তোমাকে বলছি, এদিকে আস, সে(ইউসুফ) বললঃ আল্লাহ রক্ষা করুন; তোমার স্বামী আমার মালিক। তিনি আমাকে সযত্নে থাকতে দিয়েছেন। নিশ্চয় সীমা লংঘনকারীগণ সফল হয় না।
আয়াত-24
নিশ্চয় মহিলা তার বিষয়ে চিন্তা করেছিল এবং সেও মহিলার বিষয়ে চিন্তা করত। যদি না সে(ইউসুফ) স্বীয় পালনকর্তার মহিমা অবলোকন করত। এমনিবাবে হয়েছে, যাতে আমি(আল্লাহ) তার কাছ থেকে মন্দ বিষয় ও নিলজ্জ বিষয় সরিয়ে দেই। নিশ্চয় সে আমার(আল্লাহর) মনোনীত বান্দাদের একজন
আয়াত-25
তারা উভয়ে ছুটে দরজার দিকে গেল এবং মহিলা ইউসুফের জামা পিছন দিক থেকে ছিঁড়ে ফেলল। উভয়ে মহিলার স্বামীকে দরজার কাছে পেল। মহিলা বললঃ যে ব্যক্তি তোমার পরিজনের সাথে কুকর্মের ইচ্ছা করে, তাকে কারাগারে পাঠানো অথবা অন্য কোন যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি দেয়া ছাড়া তার আর কি শাস্তি হতে পারে?
আয়াত-26
ইউসুফ (আঃ) বললেন, সেই আমাকে আত্মসংবরণ না করতে ফুসলিয়েছে। মহিলার পরিবারে জনৈক সাক্ষী দিল যে, যদি তার জামা সামনের দিক থেকে ছিন্ন থাকে, তবে মহিলা সত্যবাদিনী এবং সে মিথ্যাবাদি।
আয়াত-27
এবং যদি তার জামা পেছনের দিক থেকে ছিন্ন থাকে, তবে মহিলা মিথ্যাবাদিনী এবং সে সত্যবাদী।
আয়াত-28
অতঃপর গৃহস্বামী যখন দেখল যে, তার জামা পেছন দিক থেকে ছিন্ন, তখন সে বলল, নিশ্চয় এটা তোমাদের ছলনা। নিঃসন্দেহে তোমাদের ছলনা খুবই মারাত্নক।

কোথায় যাচ্ছেন? আরো নতুন কিছু জানার জন্য এই লেখাটি পড়ুনঃ   ফাযায়েলে আমল বইয়ে বর্ণিত হাদিসের নামে বা ধর্মের নামে বা ইসলামের নামে প্রচলিত মিথ্যা বর্ণনা বা গল্প বা কাহিনী পর্ব ২

মূল ঘটনা এতটুকুই । কিন্তু আমাদের সমাজের সুফীবাদি ও পীরতন্ত্রের মিথ্যা কিচ্চা কাহিনী এতটা মারাত্নক যে এরা নবী-রাসূল কেও অপমান করতে দ্বিধা বোধ করে না ।

তাই মহান আল্লাহ পাক বলেনঃ মুমিনগণ! যদি কোন পাপাচারী ব্যক্তি তোমাদের কাছে কোন সংবাদ আনয়ন করে, তবে তোমরা পরীক্ষা করে দেখবে” [সুরা হুজুরাত: ৬]
আল্লাহর বাণীঃ “আমি তোমাদের কাছে সত্যধর্ম পৌঁছিয়েছি; কিন্তু তোমাদের অধিকাংশই সত্যধর্মকে অপছন্দকারী” [সুরা যূখরুফ: ৭৮]
মূলত যার লজ্জা নেই, তার পক্ষে এহেন কাজ নেই যা করা সম্ভব নয়। তাই রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘‘যদি তোমার লজ্জা না থাকে তাহলে যা ইচ্ছা তাই করতে পার।’’
(বুখারী, কিতাবু আহাদীসিল আম্বিয়া, হাদিস নং৩২২৫)

MuslimPoint Organization

About MuslimPoint Organization

MuslimPoint একটি অনলাইন ভিত্তিক ইসলামী প্রশ্নোত্তর, গ্রন্থাগার, ব্লগিং, কুরআন, হাদিস, কুইজ এবং বিষয় ভিত্তিক রেফারেন্স প্ল্যাটফর্ম।

View all posts by MuslimPoint Organization →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *